কবিতা

অপরাজিতা

Zarin Tasnim 2021-01-16 17:07:06 সাহিত্য ও সংস্কৃতি 1 month agoViews:51

অপরাজিতা

অপরাজিতা

অপরাজিতা

রাসেল ইয়ামিন


নীলাঞ্জনা,

সবাই আদর করে যখন নীলু ডাকতো

আমি আরেকটু ছোট করে ডাকতাম নীল।

একবুক নীল স্বপ্ন নিয়ে ছুটতাম রোজ।

স্বপ্ন জুড়ে তুমি নীল,

তোমার নীল শাড়ি,

নীল টিপ,

নীল চুড়ি,

নীল আকাশ,

সমুদ্রের নীল জলের ধার।

একদিন বলেছিলাম তোমার ঠোঁটে নীল লিপিস্টিক লাগিয়ে দেবো,

তুমি হেসে কুটিকুটি হয়েছিলে।

জানালার পাশে নীল অপরাজিতার লতা লিকলিক করছে, গেলো আগস্টেই লাগিয়েছি।

সামনের বছরই তুমি আসার কথা, 

জানো! নার্সারির লোকটা বলেছিলো আসছে ভাদ্রমাসেই নাকি ফুটবে।

এক নীলের প্রেমে পড়ে পৃথিবীর সহস্র নীলের প্রতি যে ঝোঁকটা বেড়েই গেছিলো।

অফিসে লাগিয়েছি নীল পর্দা,

কফির মগটাও নীল।


নীল, চলে যাবার কালে আমার নীল রঙের স্বপ্ন গুলো উঠিয়ে নিয়ে গেলে, 

একদিন তোমার হাতে ছিনতাই হতে চেয়ে আজ তুমি স্বপ্নগুলোই ছিনতাই করে নিলে!

রেখে গেলে নীল রঙের বিষাদের বিষপেয়ালা

আর আমার জানালার ধারে লিকলিক করে বেড়ে চলা অপরাজিতা। 

একবুক নীল কষ্টের ওজন সইতে সইতে ধড়পড় করতে উড়ে যাবো শীঘ্রই।

জানো? মরে গেলে মানুষের মুখটাও কিছুটা নীল নীল হয়ে যায় কখনও কখনও।


তুমি ঠিকই নীল শাড়ি পড়ছো এখন

গন্ধ শুকছো অন্য কারো ঘর্মাক্ত নীল পাঞ্জাবীর।

খবর পেলে এসে আগর আর কর্পুরের গন্ধ শুঁকে যেও।

দেখে যেও জানালার ধারে লিকলিক করে বেড়ে উঠা নীল অপরাজিতা।

কমেন্ট


রিলেটেট পোস্ট